পেকুয়ায় ইউপি সদস্যকে প্রাণনাশ হুমকি সাবেক ইউপি সদস্যের!

এম.জুবাইদ.পেকুয়া : পেকুয়ায় বর্তমান ইউপি সদস্যকে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ সাবেক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। সাবেক ও বর্তমান ইউপি সদস্যের মুঠোফোনে প্রাননাশ হুমকির এঘটনা এলাকায় জানাজানি হলে দেখা দেয় অসন্তোষ।

পাহাড়ি এলাকায় সাবেক ইউপি সদস্যের নেতৃত্বে গড়ে উঠেছে অপ তৎপরতা। বর্তমান ইউপি সদস্য এসব কঠোর হস্তে প্রতিরোধ করছেন। পাহাড়ি দূর্গম এলাকায় মানুষের জানমালের নিরাপত্তার জন্য পাহারা জোরদার হচ্ছে বর্তমান ইউপি সদস্যের মাধ্যমে। এনিয়ে মূলত. দু’সদস্যের বিরোধ। সাবেক ইউপি সদস্য তার প্রতিপক্ষকে দূর্বল রাখতে দিয়েছেন মুঠোফোনে প্রাণনাশের হুমকি।

সম্প্রতি উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের সদস্য, ক্ষমতাসীনদল আওয়ামীলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলমকে প্রাণনাশ হুমকি দেয় একদল দূবৃর্ত্তরা। এ ব্যাপারে বারবাকিয়ার ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলম জানান, টৈটংয়ের ধনিয়াকাটা এলাকার সেকান্দর আলীর পুত্র ও সাবেক ইউপি সদস্য নুরুল আবছার আমাকে প্রকাশ্যে এবং মুঠোফোনে প্রাণনাশের হুমকি দেয় একাধিকবার। সে একজন দূর্ধর্ষ ডাকাত। ডাকাতি, ছিনতাই ও অস্ত্র আইনে বন মামলা সহ তার বিরুদ্ধে বিপুল মামলা ছিল। প্রায় ১৪/১৫ বছর জেলে ছিল। সে একজন দুর্ধান্ত অপরাধী।

গত কয়েক বছর আগে টৈটং ও বারবাকিয়ার রির্জাভ ও সামাজিক বাগানের হাজার হাজার গাছ নিধন করেছে। পাহাড় উজাড় ও জবর দখল করেছে ভুমি। পাহাড়ে তার কাছে মানুষ ছিল অসহায়। আবাদিঘোনা, পুর্ব ধনিয়াকাটা, লাইনের শিরা, সংগ্রামের জুম, রমিজ পাড়া, ঢালারমুখ, ছনখোলার জুম, হাকিলার দ্বারা সহ পাহাড়ি এলাকায় তার নেতৃত্বে চলছিল চাঁদাবাজি। বাড়ি ঘরে চুরি হয়েছে অহরহ। আমি মেম্বার নির্বাচিত হওয়ার পর এসব অপতৎপরতা বন্ধ করা হয়েছে। তারা পাহাড়ে কোন মানুষকে হয়রানি করতে পারছেনা। এতে আমি প্রতিপক্ষ হয়েছি। এখন আমাকে মেরে ফেলতে চেষ্টা করা হচ্ছে। আবছার মোবাইলে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে আমাকে। আমি চেয়ারম্যান ও প্রশাসনকে বিষয়টি অবহিত করেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: