আতঙ্ক ছড়াতে বোমা সদৃশ্য বস্তু

ডেস্ক: সিলেট শহরতলীর পূর্ব শাহী ঈদগাহ এলাকায় স্কলার্সহোম স্কুল অ্যান্ড কলেজের মূল ভবনের ভেতরে বোমা সদৃশ্য বস্তুটি রেখেছিল এক শিক্ষার্থী। আতঙ্ক ছাড়াতেই বস্দুটি রেখেছিল স্কুলের দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী।

বুধবার (২৬ এপ্রিল) সকাল পৌনে ১১টার দিকে ঢাকা থেকে আসা বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের সদস্যরা উদ্ধার করা বোম সদৃশ বস্তুটি স্কুল ভবনের বাইরে নিয়ে আসেন। এরপর তারা নিষ্ক্রিয় করার কাজ শুরু করে। তখনই ধরা পড়ে এটা কোনও বোমা নয়। এটা কাগজ, লাল টেপ আর হেডফোন দিয়ে তৈরি একটি বস্তু। যার মধ্যে কোনও বিস্ফোরক নেই।

সিলেট মহানগর পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (গণমাধ্যম) জিদান আল মুসা জানান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সব জায়গায় সিসি ক্যামেরা নিয়ন্ত্রিত। মঙ্গলবার ভিডিও ফুটেজ দেখে নিশ্চিত হওয়া গেছে যে, সিসিটিভি এড়াতে সন্দেহ জনকভাবে ওই স্থানে এক শিক্ষার্থী ঘোরাফেরা করছে। পরে ওই শিক্ষার্থীর বাসায় গিয়ে তল্লাশি চালানো হয়। এসময় সে স্বীকার করে খেলার ছলে সে এ কাজটি করেছে। তবে ওই বস্তুটিতে কোনও ধরনের বিস্ফোরক কিছু পাওয়া যায়নি। আতঙ্ক ছড়াতে বস্তুটি মোবাইল ফোনের হ্যাডফোন ও লাল টেপ দিয়ে পেঁচিয়ে তৈরি করা হয়েছিল।

স্কলার্সহোমের প্রিন্সিপাল অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জুবায়ের সিদ্দীকি বলেন, ‘আমাদের প্রতিষ্ঠানের দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী এ কাজটি খেলার ছলে করেছে। তাকে স্কুল থেকে বহিষ্কার করা হবে।’

তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার ক্যাম্পাসের ভেতরে প্রবেশ করার সময় শিক্ষার্থীদেরকে চেকিং করার সময় সে পাশ কাটিয়ে দিয়ে চলে যাওয়ার বিষয়টি ক্যামেরার ধরা পড়ে। এরপর পুলিশ ও র‌্যাবের সদস্যরা ভিডিও ফুটেজ দেখে তার বাসায় অভিযান চালান। সেসময় ওই শিক্ষার্থী জানায়, খেলার ছলে সে এমন কাজ করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: