বিচার বিভাগকে মর্ডানাইজেশন করা খুবি কঠিন কাজ: প্রধান বিচারপতি

ডেস্ক: বিচার বিভাগকে পঙ্গু না করার আহ্বান জানিয়ে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেছেন, বিচার বিভাগকে পঙ্গু করে কোনো জাতি মাথা উঁচু করে উঠতে পারে না। এটাকে পঙ্গু করবেন না। বাংলাদেশের বিচার বিভাগের প্রতি মানুষের যে আস্থা ছিলো সেটা একটু মলিন হয়ে ছিলো। আমি শুধু চেষ্টা করছি এই বিচার ব্যবস্থার প্রতি মানুষের আস্থা ফিরে আনার।

মঙ্গলবার রাতে বগুড়া সার্কিট হাউজে বিচার বিভাগীয় সম্মেলন-২০১৭ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্যে প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, আমরা বিচার কতটুকু করতে পারবো এটা নিশ্চিৎ করে কেউ বলতে পারি না। কারণ প্রশাসন থেকে আরাম্ভ করে সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে একটা স্থবিরতা বিরাজ করছে। বিচার বিভাগকে মর্ডানাইজেশন করা খুবি কঠিন কাজ। আমি অনেক আশা নিয়ে বিচার বিভাগকে ঢেলে সাজাবো বলে পদক্ষেপ নিয়েছিলাম। কিন্তু প্রতি পদে পদে প্রশাসনের তরফ থেকে বাধা চলে আসছে। কোনো মতেই মার্ডানাইজেশন করতে পারছি না।

আমি মনে করে ছিলাম সারা বাংলাদেশের বিচার বিভাগকে মর্ডানাইজেশন করবো, কিন্তু সরকারের একটি মন্ত্রণালয় যারা আমাদের সাথে সংশ্লিষ্ট তারাই আমাদের চিঠি দিয়ে বলেছে এটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশা আকাঙ্খার সাথে মিল নেই। ফলে বিচার বিভাগকে আধুনিকায়ন করা যাচ্ছে না। আমি বুকে হাত দিয়ে বলতে পারবো যে, বাংলাদেশের বিচার বিভাগে একটা পরিবর্তন আসছে। এটাকে কেউ অস্বীকার করতে পারবে না। মানুষের আস্থা ফিরে আসছে। মামলার নিষ্পত্তির হার বেরেছে।

আদালতের প্রতি মানুষের অনিহা থেকেই দেশে ক্রাইম বাড়তে পারে উল্লেখ করে বিচারপতি বলেন, বিচার বিভাগকে যদি আমরা শক্তিশালী না করি, তাহলে দেশে শান্তি শৃঙ্খলা থাকবে না। একটা রাজনৈতিক সরকার যখন চলে আসে তখন তাদের মধ্যে ছাত্র, শ্রমিক, শিক্ষক সংগঠন তাদের বিভিন্ন দাবি দাওয়া থাকে। সরকারকে দেশ পরিচালনা করতে হলে অনেক সময় বাধ্য হয়ে তাদের অন্যায় আবদার মানতে হয়।

এসময় তিনি আক্ষেপ করে বলেন, বাংলাদেশে যতগুলো গুরুত্বপূর্ণ আইন পাশ হয়েছে সেগুলোর একটিও আইন কমিশনের সাথে পরামর্শ করে করা হয়নি।

তিনি বগুড়ার কোর্টে বিচারাধীন অনেকগুলো মামলা দেখতে পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এসময় তিনি ১৯৮৫, ৯৬, ৯৮, ২০০৫, ২০০৬ সালের পুরাতন মামলাগুলো কথা উল্লেখ করে এসব মামলা এক মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বগুড়া জেলা জজকে নিদের্শ দিয়েছেন। তিনি এসময় হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, বিচারের নামে প্রহসণ মানবো না।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, বগুড়ার সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শফিকুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন, বাংরাদেশ সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল সৈয়দ আমিনুল ইসলাম।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বগুড়ার জেলা প্রশাসক আশরাফ উদ্দিন, পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামন, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফজলুল হক, সিভিল সার্জন অফিসার ডা. ছামসুল হক, রিগ্যাল এইডের প্যানেল আইনজীবী বাবু বিনয় কুমার বিশু, জিপি এএএম ময়নুল ইসলাম। অনুষ্ঠানটি আয়োজন করে জেলা জজশিপ ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসি, বগুড়া। প্রধান বিচারপতি এর আগে সকাল ১০টায় বগুড়া কোর্ট ভবন পরিদর্শন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: