পটিয়ায় সড়ক দখলমুক্ত করলেন ইউএনও

সনজয় সেন, পটিয়া সংবাদাতা : জনগুরুত্বপূর্ণ একটি চলাচলের রাস্তায় পিলার স্থাপন করে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করায় পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন অভিযান চালিয়ে তা উচ্ছেদ করেছেন।

সোমবার দুপুরে উপজেলার কাশিয়াইশ ইউনিয়নের দ্বারক পেরপেরা গ্রামের দূর্গা বাড়ী এলাকায় এই অভিযান চালান।

দ্বারক পেরপেরা সার্বজনীন শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারী স্মরণ উৎসব উদযাপন পরিষদের লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্তপূর্বক ইউএনও গ্রামবাসীর জন্য রাস্তাটি অবশেষে উন্মুক্ত করে দেন। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ওই এলাকার মৃত ধীরেন্দ্র লাল মহাজনের পুত্র হারাধন মহাজন ও সন্তোষ মহাজন গ্রামবাসীর চলাচলের রাস্তায় পিলার স্থাপন করে। যার কারণে ওই এলাকায় গাড়ী চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে পড়ে এবং মানুষের ভোগান্তি শুরু হয়।

ইউএনও ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, পটিয়া উপজেলার দ্বারক পেরপেরা গ্রামের গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার মাঝখানে একটি পিলার স্থাপন করায় গ্রামের নারী-পুরুষকে এতদিন চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। চলতি বছরের ২৩ ফ্রেরুয়ারী দ্বারক পেরপেরা দূর্গাবাড়ী সড়কের চলাচলের প্রতিবন্ধকতা অপসারণ করার জন্য গ্রামবাসী ইউএনও বরাবরে একটি আবেদন করেন। ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে সার্ভেয়ার দ্বারা পরিমাপ করে প্রাক্তন এসিল্যান্ড আ.ন.ম. বদরুদ্দোজা ইউএনও বরাবরে একটি প্রতিবেদন দাখিল করেন। চলাচল রাস্তায় পিলার স্থাপন করার প্রেক্ষিতে রিক্সা ও সিএনজি চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করার বিষয়টি প্রমান পাওয়ায় সোমবার দুপুরে ইউএনও অভিযান চালিয়ে তা উচ্ছেদ করেন।

এ ব্যাপারে ইউএনও আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, এলাকার গুটি কয়েক ব্যক্তি দূর্গা বাড়ী সড়কের রাস্তায় পিলার স্থাপন করায় মানুষের ভোগান্তি চরমে পৌছেছে। শুধু তা নয় ওই রাস্তা দিয়ে রিক্সা ও সিএনজি(অটোরিক্সা) চলাচল পর্যন্ত বন্ধ হয়ে পড়েছে। প্রতিবন্ধকতা উচ্ছেদ অভিযানের সময় তিনি প্রকাশ্যে বলেছেন কোন ব্যাক্তি পরবর্তীতে কেউ জনসাধারনের চলাচলের রাস্তায় খুঁটি স্থাপন করলে তার বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: