আজ পবিত্র লাইলাতুল বরাত

ডেস্ক:  আজ পবিত্র ‘লাইলাতুল বরাত’। আরবিতে ‘লাইলাতুল’ অর্থ রাত, আর ‘বরাত (বারাআতুন)’ শব্দের অর্থ মুক্তি। অর্থাৎ মুক্তির রজনী। এটিকে শবেবরাতও বলা হয়ে থাকে। ফারসি ‘শব’ শব্দের অর্থ রাত এবং ‘বরাত’ শব্দের অর্থ সৌভাগ্য। সে অর্থে সৌভাগ্যের রজনী।

হিজরি বর্ষের শাবান মাসের ১৪ তারিখ দিবাগত রাত অর্থাৎ ১৫ শাবানের রাতটি (হিজরি সনের গণনা শুরু চন্দ্রোদয় থেকে) বিশ্ব মুসলিম উম্মাহ মুক্তির রাত বা সৌভাগ্যের রাত হিসেবে পালন করে।

মর্যাদাপূর্ণ এ রাতে মহান আল্লাহতায়ালা বান্দাদের জন্য তার ক্ষমা ও অশেষ রহমতের দরজা উন্মুক্ত করে দেন। ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা পরম করুণাময়ের অনুগ্রহ লাভের আশায় আজ বেশি বেশি নফল নামাজ, কোরআন তিলাওয়াত, জিকিরে মগ্ন থাকবেন। দান-খয়রাত করবেন। বিগত জীবনের পাপ মার্জনা এবং ভবিষ্যৎ জীবনের কল্যাণ কামনা করে আল্লাহর দরবারে বিশেষ মোনাজাত করবেন।

অনেক দীনদার মজলুম আজ রোজা রেখেছেন, রাখবেন কালও। সন্ধ্যার পর অনেকে যাবেন কবরস্থানে। চিরনিদ্রায় শায়িত আপনজনদের আত্মার মাগফিরাত চেয়ে দোয়া করবেন। ইবাদত-বন্দেগির পাশাপাশি অনেক বাড়িতেই এদিন বিভিন্ন রকমের হালুয়া, ফিরনি, রুটিসহ সুস্বাদু খাবার তৈরি করা হবে। এসব খাবার বিতরণ করা হবে আত্মীয়স্বজন, প্রতিবেশী ও গরিব-দুঃখীর মধ্যে।

তবে আলেম-উলামারা এসবের চেয়ে ইবাদত-বন্দেগিতে মশগুল হওয়ার প্রতি বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন। সেই সঙ্গে শবেবরাত নিয়ে বাড়াবাড়ি কিংবা অবহেলা করতেও না করেছেন তারা। আলোকসজ্জা ও পটকাবাজি অর্থাৎ অপব্যয় ও ইবাদতে বিঘ্ন ঘটায় এমন কাজ থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।

আরবি দিনপঞ্জিকা অনুসারে শাবান মাসের পর আসে পবিত্র রমজান মাস। শবেবরাত মুসলিমদের কাছে রমজানের আগমনী বার্তা বয়ে আনে। তাই এ রাত থেকে আসন্ন রমজানের প্রস্তুতিও শুরু হয়ে যায়।

পবিত্র শবেবরাত উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া পৃথক বাণী দিয়েছেন। এসব বাণীতে তারা মুসলিম উম্মাহর বৃহত্তর ঐক্য, দেশ-জাতির কল্যাণ ও বিশ্বশান্তি কামনা করেছেন।

রাষ্ট্রীয় নিয়মানুসারে শবেবরাতের পরদিন সরকারি ছুটি থাকে। কিন্তু কাল শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটি হওয়ায় পৃথক ছুটি থাকছে না। তবে আজ বৃহস্পতিবার সংবাদপত্রের ছুটি। এ কারণে কাল সংবাদপত্র প্রকাশিত হবে না।

যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগম্ভীর পরিবেশে পবিত্র শবেবরাত পালনের জন্য বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান কর্মসূচি নিয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে আজ বাদ মাগরিব থেকে রাতব্যাপী কর্মসূচির আয়োজন করেছে। এর মধ্যে রয়েছে ‘শবেবরাতের তাৎপর্য’, ‘ইবাদত ও দোয়ার গুরুত্ব’, ‘রমজানের তাৎপর্য’, ‘জিকিরের ফজিলত’ এবং ‘তাহাজ্জুদ নামাজের গুরুত্ব’ বিষয়ে আলোচনা। কোরআন তিলাওয়াত, হামদ-নাত ও বিশেষ মোনাজাত। এছাড়া সারা দেশের প্রায় সব মসজিদে বিশেষ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: