ফটিকছড়ি দক্ষিণ জোন শহীদ হালিম-লিয়াকত স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষার পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি: শহীদ হালিম-লিয়াকত স্মৃতি সংসদ চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওতাধীন ফটিকছড়ি থানার দক্ষিণ জোনে উদ্যোগে শহীদ হালিম-লিয়াকত স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষা ২০১৬ এ উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের পুরুস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ১০ মে বুধবার আজাদীবাজার হক স্কয়ার কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়।ফটিকছড়ি দক্ষিণ জোনের পরিচালক মুহাম্মদ মোত্তলেব পারভেজ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উদ্বোধক ছিলেন ফটিকছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ জয়নাল আবেদীন মুহুরী, প্রধান অতিথি ছিলেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আতের মহাসচিব হযরতুলহাজ্ব আল্লামা সৈয়দ মছিউদ্দৌলা (মাঃজিঃআঃ)। প্রধান বক্তা ছিলেন দৈনিক পূর্বদেশের সহকারী সম্পাদক অধ্যক্ষ আবু তালেব বেলাল, বিশেষ অতিথি ছিলেন – নানুপুর লায়লা-কবির ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আ ন ম সরোয়ার আলম, হিসাববিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ইসমাইল উদ্দীন, বাংলা বিভাগের অধ্যাপক বিশ্বজিৎ চৌধুরী, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবক এস এম জাহাঙ্গীর আলম, পোমরা শহীদ জিয়ানগর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাষ্টার খোরশেদুল আলম, নর্থ সাউথ স্কুল এন্ড কলেজের চেয়ারম্যান মাজহারুল হক কায়সার, শহীদ হালিম লিয়াকত স্মৃতি বৃত্তি ফটিকছড়ি দক্ষিণ জোনের উপদেষ্টা হোসেন উদ্দীন, আলঙ্গীর হোসেন মামুন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, সারা দেশে কৃতী শিক্ষার্থীর হার বাড়লেও পড়াশুনার মান যথেষ্ট বাড়েনি। অভিভাবকরা শিক্ষার্থীদেরকে প্রকৃত জ্ঞানার্জনের দিকে ধাবিত না করে কেবল পরীক্ষায় পাস নির্ভর পড়াশুনার দিকে বেশি আগ্রহী হয়ে উঠায় শিক্ষার্থীদের মেধার যথার্থ বিকাশ ঘটছে না। বক্তারা আরো বলেন,জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অনেকেই সরকারি কলেজে ভর্তি পরীক্ষায় টিকতে পারে না। এ থেকেই বুঝা যায় পড়াশোনার মানের অবনতি ঘটেছে আশংকাজনক পর্যায়ে। কেবল পাস নির্ভর পড়াশুনা বা পরীক্ষায় কৃতিত্ব অর্জনই শিক্ষার লক্ষ্য হতে পারে না।

শিক্ষার্থীদের মেধার বিকাশের পাশাপাশি তাদেরকে সৎ, ন্যায়নিষ্ঠ, যোগ্য ও দেশপ্রেমিক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। আমাদের দৃঢ়বিশ্বাস বর্তমান ছাত্র সমাজ নৈতিক ও তথ্য-প্রযুক্তিগত শিক্ষা অর্জন করে দেশ ও আর্ন্তজাতিক ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রেখে বাংলাদেশের সম্মান বৃদ্ধির পাশাপাশি সমাজ ও দেশের দারিদ্য, নিপীড়িত ,দু:স্থ মেহনতি মানুষের সেবায় তাদের অবদান রেখে জাতিকে মুক্তির পথ প্রদর্শন করবে। শহীদ হালিম-লিয়াকত স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষা শিক্ষার্থীদের মেধা বিকাশে ও তাদের নৈতিকভাবে উৎকর্ষতা অর্জনে ভূমিকা রাখছে বলে বক্তারা উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন মাওলানা নাজিম উদ্দীন কাদেরী। বৃত্তি পরীক্ষার আয়োজকদের মধ্যে ছিলেন হুমায়ুন কবির,ফয়েজ, শাহাদৎ কাদেরী, এরশাদ চৌধুরী, নাজমুল হক মুন্না, আজাদ, আফাজ, জকরুল,আব্দুল্লাহ আল মামুন,আবু তালেব, তৈয়ব, জিকু,মাহিন, প্রমুখ। অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দ বৃত্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শতাধিক কৃতী শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্রেস্ট, সনদ ও পুরস্কার বিতরণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: