মানুষ মানুষের জন্য যার জলন্ত উদাহরণ সন্দ্বীপের অাকতার হোসেন

বিপুল ইসলাম: প্রায় ৫ বছর আগে কোতোয়ালী থানার পাশে রমজান আলী (৫২) নামে একটি লোক রাস্তার পাশে অসুস্থ অবস্থায় পড়ে ছিল, সবাই লোকটিকে ঘিরে রেখে ছিল, আকতার হোসেন নামে এই ভদ্র লোক নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করেন এবং জানতে পারেন লোকটি হার্ট এটাক করেছে। শুরু হলো চিকিৎসা, হার্ট স্পেশালিষ্ট ডাঃ বিপ্লব কুমার ভট্টাচার্য্যের কাছে,লোকটি সুস্থ হলেও ভারি কাজ কর্ম করতে পারে না,লোকটি আকতার হোসেনের কাছে থাকা খাওয়া শুরু করেন,

হঠাৎ লোকটির স্ত্রী মারা যায় বিভিন্ন রোগে,মৃত্যুর আগে দুই মেয়ে ও এক ছেলে কে তার হাতে তুলে দিয়ে যায়। মর্জীনা (২২), বড় মেয়েটিকে আগেই বিয়ে দিয়েছিল। শারমিন(১৮) ছোট মেয়েটিকে গতকাল বিয়ে দিলেন আকতার হোসেন নিজ দ্বায়িত্বে মেয়েটির বিয়েতে সব মিলিয়ে প্রায় দেড় লাখ টাকা খরচ হয়েছে, স্বর্ণ ১ ভরি ও তিন পদের ফার্নিচার। তার জন্য অনলাইন (Facebook)এর মাধ্যমে তার বন্ধুদের থেকে ২৮,০০০ টাকা তুলেন, বাকি টাকা তিনি নিজের পকেট থেকে খরছ করেন ।

আর সুমন (৮) ছেলেটিকে তার কাছে রেখে লেখা-পড়া করাচ্ছেন আজ ৩ বছর, ও এখন থ্রীতে পড়ে,পরিবারটি একেবারে অসহায়, আকতার হোসেন সামান্য চাকরী করেন, নিজের পরিবার সন্তান ভাই বোন,তবুও তিনি মহৎ কাজ করে যাচ্ছেন নিজের মহৎ গুনে, এই রকম আকতার হোসেনরাই পারেন সমাজের জন্য মহৎ কাজ করতে।তার এই মহৎ কাজের জন্য এক জন মেয়ে পেলো স্বামী সংসার।শুভ কামনা রইল মেয়েটির জন্য সে যেন সুখী হয়।ঘরে ঘরে এ রকম আকতার হোসেন জন্ম হোক,সুখে থাকুন আকতার হোসেন…

আমরা সবাই প্রার্থনা করি তার জন্য, আর এ কাজে সফল হোন তিনি, পাল্টে যাবে সমাজ,পাল্টে যাবে দেশ।

উল্লেখ্য অাকতার হোসেন এর বাড়ী সন্দ্বীপ পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড়ে হুজার-গো বাড়ি, বর্তমানে তিনি পরিবার নিয়ে চট্টগ্রামে কালুরঘাটে থাকেন। তিনি বলেন কাজ গুলো করতে পেরে তার কাছে ভালো লাগছে ,সামর্থ্য অনুযায়ী চেষ্টা করেন করার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: