পেকুয়ার মগনামায় বহিরাগত সন্ত্রাসীদের বেপরোয়া হামলা: বসতবাড়ি ভাংচুর ও স্কুল ছাত্রীসহ গুরুতর আহত ৪

নিজস্ব সংবাদদাতা,পেকুয়া,কক্সবাজার : কক্সবাজারের পেকুয়ার মগনামার বাইন্যা ঘোনা এলাকাবাসীদের উপর একদল বহিরাগত সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রশন্ত্র নিয়ে বেপরোয়া হামলা চালিয়েছে। ওই হামলায় স্কুল ছাত্রী, নারী-পুরুষসহ ৪ জন গুরুতর আহত হয়েছে। আহত একজনের অবস্থা আশংকজনক বলে জানা গেছে। গত ২১ মে সন্ধ্যা ৫ টার দিকে মগনামা ইউনিয়নের বাইন্যা ঘোনা এলাকায় এ হামলার ঘটনাটি ঘটে।

এদিকে হামলার খবর পেকুয়া থানার এসআই হুময়ান কবিরের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। হামলার সময় মগনামা-বানিয়ারছাড়া সড়কের বাইন্যা ঘোনা পয়েন্টে প্রায় ঘন্টাব্যাপী যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। বহিরাগত সন্ত্রাসীরা এসময় সড়কে যানবাহনের উপর হামলার চেষ্টা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলায় আহতরা হলেন, বাইন্যা ঘোনা গ্রামের মৃত কবির আহমদের পুত্র হতদরিদ্র নুরুল আলম (৬০), বাইন্যা ঘোনা আশ্রয়ন প্রকল্পের ছরওয়ার আলমের কন্যা স্কুল ছাত্রী ফারজানা আকতার আঁখি (১৪), পেকুয়া শহীদ জিয়াউর রহমান উপকূলীয় কলেজের এইচএসসি ফলপ্রার্থী মো. ইউসুফ (১৮) ও আরফাতুল মোস্তাফা কমল (১৯)। এসময় বাইন্যা ঘোনা গ্রামের আরো ১০/১২ জন গ্রামবাসী বহিরাগত সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত হয়েছে। তবে আহতদের পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

সরেজমিনে এলাকায় গিয়ে ও আহতদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ২১ মে বিকালে একটি তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র বারবাকিয়া ইউনিয়নের বুধামাঝির ঘোনা এলাকার আশ্রয়ন প্রকল্পের বাসিন্দা ও দূর্ধর্ষ সন্ত্রাসী, ইয়াবা ব্যবসায়ী শাহাব উদ্দিন, তার পুত্র গাজা ও ইয়াবা ব্যবসায়ী তোহিদুল ইসলাম, একাধিক মামলার আসামী দূর্ধর্ষ সন্ত্রাসী রেজাউল করিমের নেতৃত্বে মগনামা বাজার পাড়া গ্রামের আবুল হোসেনের পুত্র জোসেফ (২৫), সায়েম, সাজ্জাদসহ আরো ৫০/৬০ জনের একদল লোক দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে বাইন্যা ঘোনা গ্রামবাসীদের উপর হামলা চালায়। হামলায় বাইন্যা ঘোনা গ্রামের স্কুল শিক্ষার্থীসহ ৪জন গুরুতর আহত হয়। অপরদিকে হামলার সময় পেকুয়া বাজার থেকে সিএনজি অটোরিক্সা করে পেকুয়ার দুই জন সংবাদকর্মীর সাথে মগনামা ঘাটে যাচ্ছিলেন পেকুয়া কলেজের এইচএসসি ফলপ্রার্থী ইউসুফ ও কমল। সিএনজি অটোরিক্সাটি ঘটনাস্থলে পৌছামাত্র বাজার পাড়া গ্রামের সায়েম ও মৌলভী আবদুল মাবুদের পুত্র সাজ্জাদ সিএনজি অটোরিক্সা থেকে ঠেনে হিছড়ে বের করে তাদের উপর হামলা চালায়। এসময় তাদের কাছ থেকে দুইটি মোবাইল সেট ও কিছু নগদ টাকা ও ছিনিয়ে নেন।

অপরদিকে হামলায় আহতদের মধ্যে হতদিরদ্র নুরুল আলমের অবস্থা আশংকা জনক। তাকেসহ অন্যান্য আহতদের পেকুয়া সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে নুরুল আলমের মাথার আঘাত গুরুতর হওয়ায় তাকে চমেক হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। হামলার সময় বহিরাগত বারবাকিয়া ইউনিয়নের দূর্ধর্ষ সন্ত্রাসী রেজাউল করিম, বুধামাঝির ঘোনা আশ্রয়ন প্রকল্পের ইয়াবা ব্যবসায়ী শাহাব উদ্দিন ও তার পুত্র ইয়াবা ব্যবসায়ী তৌহিদুল ইসলাম, বাজার পাড়া গ্রামের জোসেফ এর নেতৃত্বে বাইন্যা ঘোনায় অবস্থিত সরকারী আবাসন প্রকল্পে হামলা ও লুটপাট চালিয়েছে। বাইন্যা ঘোনার বেশ কয়েকটি দোকানেও তারা নির্বিচারে লুটপাট চালায়। হামলা করে পালিয়ে যাওয়ার সময় বাইন্যা ঘোনা গ্রামের মো. কালুর পুত্র ওমর ফারুকের বসতবাড়িও ভাংচুর করা হয়েছে।

বাইন্যা ঘোনা গ্রামের বাসিন্দারা অভিযোগ করেছেন, বিনা উস্কানিত বুধামাঝির ঘোনা গ্রাম ও বাজার পাড়া গ্রামের অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা বাইন্যা ঘোনা গ্রামের সরকারী আশ্রয়ন প্রকল্পে বেপরোয়া হামলা চালিয়ে কয়েকটি বসতবাড়ি লুটপাট করেছে। এদিকে বাইন্যা ঘোনা সরকারী আশ্রয়ন প্রকল্পের বাসিন্দা ও বাইন্যা ঘোনা গ্রামের নিরীহ বাসিন্দাদের উপর বহিরাগত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের ন্যাক্করজনক বর্বর হামলার ঘটনায় জড়িত সন্ত্রাসীদের দ্রুত গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্তমূলত শাস্তির আওতায় আনার জন্য স্থানীয় সুশীল সমাজ পুলিশ প্রশাসনের কাছে জোর দাবী জানিয়ছেন।

মগনামা ইউপি চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ চৌধুরী ওয়াসিম জানিয়েছেন, তিনি হামলার খবর শুনেছেন। তিনি তাৎক্ষনিক পেকুয়া থানা পুলিশকে ঘটনার বিষয়টি অবহিত করেছেন। তিনি বিষয়টি নিয়ে উভয়পক্ষকে নিয়ে বৈঠক বসবেন।

পেকুয়া থানার ওসি জহিরুল ইসলাম খান জানান, তিনি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিত নিয়েন্ত্রনে নিয়েছেন। হামলায় আহতদের পরিবার থানায় অভিযোগ দায়ের করলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: