কাশিমপুর কারাগারের রেশনের ৬৮ বস্তা গমসহ আটক ১

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক), গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি : গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের কর্মকর্তা ও কারারক্ষীদের রেশনের গম বিক্রির উদ্দেশে নেওয়ার সময় ৬৮ বস্তা গমসহ পিকআপ চালককে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সালনা হাইওয়ে থানার ওসি মোহাম্মদ হোসেন সরকার জানান, কাশিমপুর কারাগার থেকে পিকআপে করে গম পাচার হচ্ছে- এমন খবর পেয়ে ৮ জুলাই শনিবার বিকেলে অভিযান চালানো হয়। এতে ৬৮টি বস্তায় প্রায় সাড়ে তিন টন গম আটক করা হয়। পিকআপ চালক সেলিম মিয়াকে গাড়িসহ আটক আটক হয়েছে।

পিকআপ চালক সেলিম জানান, কাশিমপুর কারাগারের কারারক্ষী মোঃ রুকন উজ্জামান গমগুলো টঙ্গীর ব্যবসায়ী মাসুদ মোল্লার কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য তার পিকআপটি ভাড়া নিয়েছিল।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এর সিনিয়র জেল সুপার সুব্রত কুমার বালা জানান, কারাগারের কর্মকর্তা ও কারারক্ষীদের প্রতিমাসে রেশন দেওয়া হয়। ওই রেশন থেকে অনেকে গম বা অন্য সামগ্রী বিক্রি করে বাইরে থেকে চাল বা অন্য সামগ্রী ক্রয় করে থাকেন। কারাগারের এক কারারক্ষী তা ক্রয় করে বাইরে বিক্রি করে দেন। শনিবার গমগুলো কারাগারের বাইরে নিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ তা আটক করে।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এর কারারক্ষী মোঃ রুকন উজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, এ কারা কমপ্লেক্সের চারটি কারাগারের জেল সুপার, জেলার, সুবেদার, সার্জনসহ সংশ্লিষ্ট স্টাফরা প্রতিমাসে চাল, ডাল, চিনি, গম, তেল রেশন হিসেবে পান। তাদের অনেকেই প্রয়োজনের অতিরিক্ত পণ্য বিক্রি করে দেন। আমি বাহক হিসেবে বাইরের বিভিন্ন ব্যবসায়ীর কাছে ওই সব মালামাল বিক্রি করে দেই। শনিবার রেশনের সাড়ে তিন টন গম পিকআপে করে টঙ্গীর ব্যবসায়ী মাসুদ মোল্লার কাছে পাঠানো হচ্ছিল।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ডঃ দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর জানান, ঘটনাটি খতিয়ে দেখতে গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মাহমুদ হাসানকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

জয়দেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আমিনুল ইসলাম জানান, হাইওয়ে পুলিশের আটক করা পিকআপভর্তি গম জয়দেবপুর থানায় রয়েছে। রবিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত এ ব্যাপারে থানায় কোন মামলা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: